বাঙ্গালী
Friday 14th of August 2020
  1916
  0
  0

নাইজেরিয়ায় আযাদারীর কাফেলায় আত্মঘাতী হামলা ; ২১ ব্যক্তির শাহাদাত

ইমাম হুসাইন (আ.) এর আরবাইনের কাছাকাছি সময় গত শুক্রবার নাইজেরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় কানো শহরের ২০ কিলোমিটার দক্ষিনে আযাদারী পালনের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়া একটি কাফেলায়আত্মঘাতী বোমা হামলায় ২১ ব্যক্তি শহীদ হয়েছেন।
নাইজেরিয়ায় আযাদারীর কাফেলায় আত্মঘাতী হামলা ; ২১ ব্যক্তির শাহাদাত
ইমাম হুসাইন (আ.) এর আরবাইনের কাছাকাছি সময় গত শুক্রবার নাইজেরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় কানো শহরের ২০ কিলোমিটার দক্ষিনে আযাদারী পালনের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়া একটি কাফেলায়আত্মঘাতী বোমা হামলায় ২১ ব্যক্তি শহীদ হয়েছেন।

হলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা –আবনা- : ইমাম হুসাইন (আ.) এর আরবাইন তথা চল্লিশার অনুষ্ঠানে যোগদানের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়া একটি কাফেলার মাঝেআত্মঘাতী এক ব্যক্তি নিজেকে বিস্ফোরিত করলেন ঘটনাস্থলে ২১ ব্যক্তি শহীদ হন। এ ঘটনায় বহু লোক আহত হয়েছেন। নাইজেরিয়ার কানো প্রদেশে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। শোকার্ত ব্যক্তিরা ইমাম হুসাইন (আ.) এর চল্লিশার অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যারিয়া শহরের দিকে যাচ্ছিলেন।

ইসলামি মুভমেন্ট অব নাইজেরিয়ার সদস্য ও পায়ে হেটে রওনা হওয়া ঐ কাফেলার নেতৃত্ব দানকারী মুহাম্মাদ তৌরি ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদেরকে দেয়া সাক্ষাতকারে বলেছেন : আত্মঘাতী এ হামলায় ২১ ব্যক্তি শহীদ এবং বহু লোক আহত হয়েছে।

তিনি বলেন : এ হামলায় আক্রান্ত হয়ে আমরা আশ্চার্যান্বিত হইনি, কারণ সারা দেশেই এমন পরিস্থিতি বিরাজমান।

নাইজেরিয়ার এ শিয়া নেতা আরো বলেন : এ ধরনের সন্ত্রাসী হামলা আমাদের মাযহাবি অনুষ্ঠান পালনের পথে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারবে না। যদি এ হামলায় আমাদের সকলের প্রাণ যেত তবুও আমাদের মাঝে বেঁচে থাকা শেষ ব্যক্তিটি তার দায়িত্ব পালন করতো।

তিনি বলেন : আমাদের চলার পথ রক্তে রঙিন হয়েছে কিন্তু আরবাইনের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীরা তাদের পথ চলাঅব্যাহত রেখেছে।

পুলিশের উর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা এ ঘটনা সম্পর্কে জানিয়েছেন : স্থানীয় সময় দুপুর ২ টায় এ হামলা চালানো হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এ কাফেলার জনৈক কর্মকর্তা জানিয়েছেন : সে (আত্মঘাতী ব্যক্তি) অন্যান্যদের মত কালো পোশাক পরে ছিল। তার সহযোগীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং সে স্বীকার করেছে যে, বোকো হারাম তাদেরকে পাঠিয়েছে।

ইসলামি মুভমেন্ট অব নাইজেরিয়ার এ সদস্য বলেন : গতবছর বোকো হারাম যে সকল যুবকদেরকে (বুর্নো প্রদেশের অন্তর্ভূক্ত) মুবি শহর থেকে অপহরণ করে সাম্বিসা জঙ্গলে নিয়ে প্রশিক্ষণ দিয়েছিল, এ হামলায় অংশগ্রহণকারী দু’জন তাদের অন্তর্ভুক্ত।

তার সংযোজন : তাদেরকে ১১ দিন পূর্বে কানো শহরে পাঠানো হয়েছে এবং এ হামলা পরিচালনার জন্য তাদেরকে বিশেষ স্থানে রাখা হয়েছিল।

তিনি বলেন : আত্মঘাতী ঐ ব্যক্তি তার সহযোগীর গ্রেফতার হওয়ার বিষয়টি আঁচ করতে পেরে তার সাথে থাকা এক্সপ্লোসিভ বেল্টের বিস্ফোরণ ঘটায়।

নাইজেরিয়ার অস্থিতিশীলতার নেপথ্যে রয়েছে বোকো হারাম। সন্ত্রাসী এ দলটির আত্মঘাতী হামলায় এ নাগাদ বহু বেসামরিক লোক ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য নিহত হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বছর ৯ মহররম পাস্তিকোম শহরে আত্মঘাতী হামলায় ২০ ব্যক্তি শহীদ এবং ৫০ জন আহত হয়েছিল।#


source : abna24
  1916
  0
  0
امتیاز شما به این مطلب ؟

latest article

    আরো নিষেধাজ্ঞা; 'ট্রাম্পও কবরে যাবেন ...
    বরুসিয়ার বাসে হামলার পেছনে জঙ্গিরা ...
    চট্টগ্রামে ইরান বিপ্লবের ৩৮তম বিজয় ...
    নাইজারে বোকো হারাম জঙ্গিদের হামলায় ৬ ...
    কাবুলে আত্মঘাতী হামলা ; ১২০ জন হতাহত ...
    'গাজায় ইসরাইলি বিমান হামলার শরিক ...
    আরবাইনের পদযাত্রায় যায়েরদের সেবা ...
    দুই শতাধিক ধর্ষণ করেছি’
    Al-Wefaq pénalité et de la vie plainte mort et l'emprisonnement 10 bahreïnies
    রুহানির চিঠির জবাবে সর্বোচ্চ নেতা: ...

 
user comment