বাঙ্গালী
Thursday 20th of June 2019
  58
  0
  0

মুসলিমবিরোধী পোস্টার : ক্ষুব্ধ মার্কিন কংগ্রেস সদস

মুসলিমবিরোধী পোস্টার : ক্ষুব্ধ মার্কিন কংগ্রেস সদস

ওয়েস্ট ভার্জিনিয়ার রিপাব্লিকানরা বলছেন তারা ঘৃণা সৃষ্টি করতে পারে এমন কোনো কাজ সমর্থন করেন না এবং তারা অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তাদের পোস্টারটি সরিয়ে নিতে বলেছেন।

আবনা ডেস্কঃ আমেরিকান কংগ্রেসের সদস্য ইলহান উমর ১১ সেপ্টেম্বরের জঙ্গি হামলার সঙ্গে তাকে জড়িয়ে একটি পোস্টার প্রদর্শনের নিন্দা করেছেন।
তিনি বলেন, মুসলিমবিরোধী এই পোস্টারে সন্ত্রাসের সঙ্গে আমাকে জড়ানো হয়েছে। এ পোস্টার আমার জীবনের জন্য ঝুঁকি সৃষ্টি করতে পারে।
ওয়েস্ট ভার্জিনিয়ার রিপাব্লিকানরা বলছেন তারা ঘৃণা সৃষ্টি করতে পারে এমন কোনো কাজ সমর্থন করেন না এবং তারা অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তাদের পোস্টারটি সরিয়ে নিতে বলেছেন।
গত নভেম্বর মাসে ইলহান উমর নির্বাচনে জেতেন। আমেরিকান কংগ্রেসে প্রথমবার যে দুজন মুসলিম নারী নির্বাচনে জিতেছেন ইলহান উমর তাদের একজন।
ওয়েন্ট ভার্জিনিয়ার চালর্সটনে ওই অনুষ্ঠানে শুক্রবার যে পোস্টার লাগানো হয়েছে তাতে ইলহান উমরকে দেখা যাচ্ছে এবং তার ছবির পাশে নিউইয়র্কে টুইন টাওয়ারে আগুন জ্বলতে দেখা যাচ্ছে। পাশে লেখা আছে, ‘আপনি বলেছিলেন- কখনো ভুলো না। কিন্তু আপনি যে ভুলে গেছেন- আমিই তার প্রমাণ।’
ইলহান উমর বলেন, এই পোস্টারের জন্যই আমার জীবনের জন্য হুমকি সৃষ্টি হয়েছে। দেশের ভেতর আমাকে যে এ কারণেই সন্ত্রাসী আখ্যা দেয়া হচ্ছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। আমার পাড়ার পেট্রল স্টেশনে এ জন্যই কারা লিখে রেখেছে ‘ইলহান উমরকে হত্যা কর।
তিনি বলেন, রিপাবলিকানরা তাদের মুসলমানবিরোধী প্রচারণার সঙ্গে আমার নাম এভাবে জড়িয়েছে, অথচ আশ্চর্য কেউ তাদের নিন্দা করছে না।।
মিস উমর খুনের তালিকায় তার নাম অর্ন্তভূক্ত করার যে কথা বলেছেন তা শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদীদের সন্দেহভাজন একটা ষড়যন্ত্রের অংশ বলে মনে করা হচ্ছে।
ইলহান উমর এবং প্রথম সারির কিছু ডেমোক্র্যাট রাজনীতিককে হত্যা করার জন্য ওই শ্বেতাঙ্গ গোষ্ঠির কাছে অস্ত্র এবং কাদের তারা মারতে চায় তার একটা তালিকা আছে বলে অভিযোগ।
ওই অনুষ্ঠানে এসিটি ফর আমেরিকা নামে ‘মুসলিমবিদ্বেষী’ একটি গোষ্ঠীর বিভিন্ন পোস্টারের সঙ্গে প্রদর্শিত হয়েছে ইলহান উমরকে নিয়ে তৈরি এই পোস্টার।
তবে এসিটি ফর আমেরিকা বলেছে, ইলহান উমরের ওই পোস্টারের ব্যাপারে তাদের কোন সংশ্লিষ্টতা নেই এবং ‘বৈষম্যের ব্যাপারে গোষ্ঠিটি জিরো-টলারেন্স’ নীতিতে বিশ্বাসী।

  58
  0
  0
امتیاز شما به این مطلب ؟

latest article

      ইসরাইলি হামলায় দুই হামাস যোদ্ধাসহ ৪ ...
      মিয়ানমারের রাখাইনে সেনাবাহিনীর ...
      প্রাইভেট ভার্সিটির মান ও ডিগ্রি ...
      ব্রিটেনে প্রতিদিন গড়ে ২টি মুসলিম ...
      আইএসআইএল যুক্তরাষ্ট্রের সৃষ্টি
      রাষ্ট্রীয় মদদেই মিয়ানমারে রোহিঙ্গা ...
      মিশরের ইখওয়ানুল মুসলিমিনের ...
      কেন ইসরাইলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামছি ...
      সৌদির অনুগত হয়েও শেষ রক্ষা হল না: ...
      শ্রীলঙ্কা হামলার দায় স্বীকার করে ...

 
user comment