বাঙ্গালী
Thursday 20th of February 2020
  859
  0
  0

শিয়া গণহত্যার ঘটনায় আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করা হবে

লামিক মুভমেন্ট অব নাইজেরিয়া ঘোষণা করেছে, নাইজেরিয়ার শিয়াদের বিরুদ্ধে চালানো নৃশংস গণহত্যার ঘটনায় এ পর্যন্ত এক জনকেও আটক করেনি বুহারি সরকার। এর অর্থ হচ্ছে, ঐ গণহত্যার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নিতে আগ্রহী নয় নাইজেরিয়ার ক্ষমতাসীন সরকার।

হলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা): ইসলামিক মুভমেন্ট অব নাইজেরিয়ার শীর্ষ নেতা শাইখ ইব্রাহিম যাকযাকিকে আটকের ৭০০তম দিবসে, এ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে হাজার হাজার শিয়া মুসলিম বিক্ষোভ করেছে। বিক্ষোভকারীরা শাইখ যাকযাকি এবং তার স্ত্রীর ছবি হাতে নিয়ে অনতি বিলম্বে তাদের মুক্তির দাবী জানায়।

ইসলামিক মুভমেন্ট অব নাইজেরিয়ার মুখপাত্র জানিয়েছেন, তারা নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদ বুহারি ও কাদুনা প্রদেশের গভর্নর নাসির রাউফি’র বিরুদ্ধে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিমিনাল কোর্টে মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

তিনি বলেন: মুভমেন্টের আধ্যাত্মিক নেতাকে গ্রেপ্তারের ৭০০ দিন পেরিয়ে গেছে। নাইজেরিয়ার সুপ্রিম কোর্ট শাইখ যাকযাকিকে মুক্তির নির্দেশ দিলেও বিনা কারণে এখনো তাকে আটকে রাখা হয়েছে।

ইব্রাহিম মুসা ঐ বিবৃতিতে উল্লেখ করেন: বুহারি একটি ফ্যাসিবাদী সরকারকে পরিচালনা করছেন। তারা আইনের তোয়াক্বা না করে বিনা কারণে শিয়াদের উপর গণহত্যা চালিয়েছে এবং তাদেরকে গণহারে গ্রেপ্তার অব্যাহত রেখেছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, নাইজেরিয়ার শিয়াদের বিরুদ্ধে চালানো নৃশংস গণহত্যার ঘটনায় এ পর্যন্ত এক জনকেও আটক করেনি বুহারি সরকার। এর অর্থ হচ্ছে, ঐ গণহত্যার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নিতে আগ্রহী নয় নাইজেরিয়ার ক্ষমতাসীন সরকার। নাইজেরিয়া সরকার অপরাধীদেরকে প্রশ্রয় দিচ্ছে; যাতে তারা স্বাধীনভাবে আরও বেশী অপরাধকর্ম করতে পারে।

নাইজেরিয়া ইসলামি মুভমেন্টের মুখপাত্রের সংযোজন: এ অন্যায়ের প্রতিবাদে আমরা সম্ভাব্য সকল আইনি পথ অতিক্রম করতে প্রস্তুত। হেগে অবস্থিত ইন্টারন্যাশনাল ক্রিমিনাল কোর্টের প্রতি আমাদের আবেদন হচ্ছে যেন এ আদালত নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদ বুহারি, কাদুনার গভর্নর নাসির রাউফি ও নাইজেরিয়ার সেনাপ্রধান জেনারেল ইউসুফ বারাতিসহ যারাই কাদুনায় শিয়াদের বিরুদ্ধে গণহত্যার সাথে জড়িত ছিল তাদেরকে আইনের আওতায় নিয়ে আসে।

তিনি বলেন: শাইখ যাকযাকি, তার স্ত্রী এবং এ মুভমেন্টের শত শত সদস্যকে অবৈধভাবে আটকের ৭০০ দিন পেরিয়ে গেছে। আজও আমরা অপেক্ষায় আছি কবে এ হত্যাযজ্ঞের বিচার হবে।#

  859
  0
  0
امتیاز شما به این مطلب ؟

latest article

    ইসরাইলি হামলায় দুই হামাস যোদ্ধাসহ ৪ ...
    মিয়ানমারের রাখাইনে সেনাবাহিনীর ...
    প্রাইভেট ভার্সিটির মান ও ডিগ্রি ...
    ব্রিটেনে প্রতিদিন গড়ে ২টি মুসলিম ...
    আইএসআইএল যুক্তরাষ্ট্রের সৃষ্টি
    রাষ্ট্রীয় মদদেই মিয়ানমারে রোহিঙ্গা ...
    মিশরের ইখওয়ানুল মুসলিমিনের ...
    কেন ইসরাইলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামছি ...
    সৌদির অনুগত হয়েও শেষ রক্ষা হল না: ...
    শ্রীলঙ্কা হামলার দায় স্বীকার করে ...

 
user comment