বাঙ্গালী
Wednesday 26th of June 2019
  424
  0
  0

রায় প্রত্যখ্যান করে সমাবেশ : বিভক্ত শাহাবাগীদের ওপর পুলিশের জলকামান লাঠিচার্জ : ইমরানকে পিটুনি

ইমরান এইচ সরকারের দুর্নীতি, স্বেচ্চাচারিতাসহ নানা কারণে তিনভাগে বিভক্ত শাহবাগীদের ওপর পৃথক সমাবেশ জলকামান প্রয়োগ ও লাঠিচার্জ করে হঠিয়ে দিয়েছে পুলিশ।
পিটুনিতে আহত হয়েছে শাহবাগী নেতা ও তথাকথিত গণজাগারণ মঞ্চের একাংশের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিত্সা দেয়া হয় বলে জানা গেছে।
এছাড়া পুলিশের গরম পানি ও টিয়ারসেলের আঘাতে আরও চার কর্মী আহত হয় বলে ইমরান এইচ সরকারের অংশের নেতাকর্মীদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়।
বুধবর দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর আপিল মামলার রায় প্রত্যাখান করে মঞ্চের বিভক্ত অংশগুলো পৃথক স্থানে সড়ক অবরোধের চেষ্টা করলে পুলিশ এ অ্যাকশনে যায়।
রায়ের প্রতিবাদে আজ বৃহস্পতিবার এবং কাল শুক্রবার শাহবাগে সমাবেশ করার ঘোষণা দিয়েছে মঞ্চের একাধিক অংশ।
জামায়াত ইসলামীর সিনিয়র নায়েবে আমির দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর আপিল মামলার রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে বুধবার সকাল থেকেই শাহবাগে অবস্থান নেয় গণজাগরণ মঞ্চের দুটি অংশ। এর মধ্যে জাতীয় জাদুঘরের মূল ফটকের বামপাশে সরকার সমর্থক হিসেবে পরিচিত কামাল পাশা গ্রুপ এবং ডান পাশে ইমরান সরকার গ্রুপ অবস্থান নেয়। এছাড়া ১২টি ছাত্র সংগঠনের গ্রুপটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আলাদা আলাদাভাবে কর্মসূচী পালন করে। ছাত্রলীগও পৃথকভাবে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে।
সকালে সাঈদীর সাজা কমানোর রায় শোনার সাথে সাথে বিক্ষোভ মিছিল বের করে ইমরানের নেতৃত্বাধীন গ্রুপটি। তারা ট্রাইব্যুনাল ঘেরাওয়ের লক্ষে শতাধিক নেতাকর্মীসহ দোয়েল চত্বরে পৌছলে পুলিশ বাঁধা দেয়। পরে তারা সেখান থেকে শাহবাগ মোড়ে ফিরে আসে এবং মূলসড়ক অবরোধ করার চেষ্টা করে। তবে প্রায় আধাঘন্টা পর পুলিশ তাদের ওপর জলকামান এবং টিয়ারসেল নিক্ষেপ করলে ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। এসময় ইমরানসহ অন্তত তিনজন আহত হয়। তাদেরকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তারা বিকেলে বিক্ষোভ সমাবেশ পালনের ঘোষণা দিয়ে আগের জায়গায় অবস্থান কর্মসূচী পালন শুরু করে। অবরোধ শুরুর আগে ইমরান সরকার সাংবাদিকদেরকে বলেন, এ রায় জনগণ মানে না। সরকার জামায়াতের সাথে আতাত করে এ রায় ঘোষণা করেছে। এর বিরুদ্ধে মঞ্চের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।
একই সময়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষিপ্ত হয়ে কর্মসূচী পালন করা বিভিন্ন ছাত্র সংগঠন এক হয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে শাহবাগে আসে। অর্ধশত নেতাকর্মীর এ গ্রুপটি শাহবাগের মূল সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভের চেষ্টা করে। তাদের ওপরও পুলিশ টিয়ারসেল নিক্ষেপ করলে ছত্রভঙ্গ হয়ে কাঁটাঁবন মার্কেটের দিকে যায়। পরে পুনরায় একত্রিত হয়ে মিছিল সহকারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে চলে যায়। এসময় এ অংশের অন্যতম সংগঠক ছাত্র মৈত্রী সভাপতি বাপ্পাদিত্য বসু বলেন, এ রায় কখনোই মেনে নেয়া যায় না। আমাদের দাবি, প্রয়োজনে নতুন আইন করে তাকে সর্বোচ্চ শাস্তি তথা ফাঁসি দেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। ওদিকে সরকার সমর্থক হিসেবে পরিচিত কামাল পাশা নেতৃত্বাধীন গ্রুপটি সকাল থেকেই একইস্থানে বিক্ষোভ করে। জাতীয় জাদুঘরের মূল গেটের বাম দিকে অবস্থান নিয়ে অর্ধশত নেতাকর্মীর গ্রুপটি তাদের অবস্থান কর্মসূচী পালন করে।
বিকেলেও পৃথকভাবে বিক্ষোভ সমাবেশ কর্মসূচী পালন করে গণজাগরণ মঞ্চের অংশগুলো। এসময় তারা আজ সারাদেশে এবং আগামীকাল বিকেল চারটায় সমাবেশ করে রাত দশটা পর্যন্ত শাহবাগে অবস্থান কর্মসূচী পালন করার ঘোষণা দেন। এছাড়া আজ হরতাল বিরোধী মিছিল করা হবে বলে জানিয়েছেন।

  424
  0
  0
امتیاز شما به این مطلب ؟

latest article

      ইসরাইলি বাহিনীর হামলায় হামাসের ২ ...
      'গাজায় ইসরাইলি বিমান হামলার শরিক ...
      ইয়েমেনে শিশুদের ওপর হামলায় মার্কিন ...
      আগ্রাসীদের রাজধানী আর নিরাপদ থাকবে ...
      গ্রিসে ইসলামের প্রসার বাড়ছে
      ঘুড়ি ও বেলুনে অসহায় ইসরাইলের নয়া ...
      সৌদি জোটের বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ
      ইয়েমেনিদের হামলায় ৫৮ সৌদি সেনা নিহত
      শুক্রবার দেখা যাবে শাওয়াল মাসের নতুন ...
      ইসরাইল-বিরোধী সংগ্রাম জোরদারের শপথে ...

latest article

      ইসরাইলি বাহিনীর হামলায় হামাসের ২ ...
      'গাজায় ইসরাইলি বিমান হামলার শরিক ...
      ইয়েমেনে শিশুদের ওপর হামলায় মার্কিন ...
      আগ্রাসীদের রাজধানী আর নিরাপদ থাকবে ...
      গ্রিসে ইসলামের প্রসার বাড়ছে
      ঘুড়ি ও বেলুনে অসহায় ইসরাইলের নয়া ...
      সৌদি জোটের বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ
      ইয়েমেনিদের হামলায় ৫৮ সৌদি সেনা নিহত
      শুক্রবার দেখা যাবে শাওয়াল মাসের নতুন ...
      ইসরাইল-বিরোধী সংগ্রাম জোরদারের শপথে ...

 
user comment