বাঙ্গালী
Saturday 25th of May 2019
  505
  0
  0

নৈতিক দৃষ্টিকোণ থেকেও তওবা করা ওয়াজিব ৪র্থ পর্ব

লেখকঃ আয়াতুল্লাহ হুসসাইন আন্সারিয়ান

মহান আল্লাহ হযরত আদম(.) তাঁর স্ত্রীর অনুতাপ নিজেদের অন্যায় স্বীকার করাকে পছন্দনীয় কাজ হিসাবে উল্লেখ করেছেন এবং এটাকে তাদের তওবা বলে গ্রহণ করে নিয়েছেন। এবং  সুরা বাকারার ৩৭ নং আয়াতে তাদের তওবাকে গ্রহণ করেছেন। তবে আমাদেরকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে, মহান আল্লাহর দরবারে ভুল স্বীকার তওবা করার ক্ষেত্রে বিনয়, নম্রতা আন্তরিকতা খুবই জরুরী। নীতিশাস্ত্রের শিক্ষকদের দৃষ্টিতে অহংকার হচ্ছে বান্দা স্রষ্টার মধ্যে পর্দা  প্রতিবন্ধক স্বরূপ। আর বিনয় নম্রতা হচ্ছে মহান আল্লাহর নৈকট্য অর্জনের সরল-সোজা উন্মুক্ত পথ। বিনয় নম্রতা হচ্ছে ঐশী অবদান এবং গোনাহ থেকে মুক্তি মহান আল্লাহর দাসত্ব বন্দেগী করার জন্য তা পালন করা অপরিহার্য। সুতরাং গোনাহ থেকে তওবা করার অর্থ হচ্ছে মহান আল্লাহর কাছে নমনীয় হওয়া এবং অহংকার দাম্ভিকতা থেকে বেরিয়ে আসা। অতএব নৈতিক দৃষ্টিকোণ থেকেও তওবা করা অপরিহার্য।

অহংকার সম্পর্কে হাদিসে বর্ণিত হয়েছে:

عَن حَكيم قَالَ : سَأَلْتُ أبَا عَبدِاللهِ (عليه السلام) عَن اَدْنَى الاِلْحادِ ، فَقالَ : اِنَّ الكِبْرَ أَدْناهُ  

হাকিম বলেন, ইমাম জাফর সাদিক(.)-এর কাছে আল্লাহকে অস্বীকার করার সর্ব নিম্ন স্তর সম্পর্কে প্রশ্ন করলাম, ইমাম বললেন: আল্লাহকে অস্বীকার করার সর্ব নিম্ন স্তর হচ্ছে অহংকার।[1]



উসুলে কাফী 2 খণ্ড, পৃ: 309, বাবুল কিবর, হাদিস-1;  বিহারুলন আনওয়ার 70তম খন্ড,পৃ: 190; বাব-130, হাদিস-1

  505
  0
  0
امتیاز شما به این مطلب ؟

latest article

      পবিত্র রমজানের প্রস্তুতি ও ...
      সুন্নি আলেমদের দৃষ্টিতে ইমাম মাহদি ...
      ‘১০ বছরের মধ্যে ব্রিটেন হবে মুসলিম ...
      প্রাচীন ইসলামি নিদর্শন ধ্বংস করার ...
      ব্রাসেলসে ইহুদি জাদুঘরে হত্যাকাণ্ড ...
      রজব মাসের ফজিলত ও আমল
      সাড়ে ৫ হাজার ইরাকি বিজ্ঞানীকে হত্যা ...
      ইরান পরমাণু বোমা বানাতে চাইলে কেউই ...
      অশ্রু সংবরণ করতে পারেননি আফজাল গুরুর ...
      ধর্ম নিয়ে তসলিমার আবারো কটাক্ষ

 
user comment