বাঙ্গালী
Tuesday 12th of November 2019
  641
  0
  0

পাকিস্তানে মুসলিম সংহতি বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে ঐক্যের আহ্বান

পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে মুসলিম সংহতি বিষয়ক এক আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্ব সাম্রাজ্যবাদী শক্তির মোকাবেলায় মুসলিম ঐক্যকে আরো শক্তিশালী ও সুদৃঢ় করতে নিজেদের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা ও সম্পর্ক আরো শক্তিশালী করার উপায় খুঁজে বের করার জন্য বিশ্বের বিভিন্ন ধর্মীয় ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের নিয়ে আন্তর্জাতিক এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
 পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে মুসলিম সংহতি বিষয়ক এক আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্ব সাম্রাজ্যবাদী শক্তির মোকাবেলায় মুসলিম ঐক্যকে আরো শক্তিশালী ও সুদৃঢ় করতে নিজেদের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা ও সম্পর্ক আরো শক্তিশালী করার উপায় খুঁজে বের করার জন্য বিশ্বের বিভিন্ন ধর্মীয় ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের নিয়ে আন্তর্জাতিক এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে উপস্থিত বক্তারা মার্কিন নেতৃত্বে পাশ্চাত্যের ইসলাম ও মুসলিম বিরোধী ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় সারা বিশ্বের মুসলমানদের মধ্যে ঐক্য ও সংহতি বজায় রাখার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

মুসলিম সংহতি বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে উপস্থিত ইরানের প্রতিনিধি দলের প্রধান হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন আরাকি তার বক্তৃতায় বিশ্বের মুসলমানদের সমস্যা সমাধান এবং বিরাজমান বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় একটি আন্তর্জাতিক মুসলিম ইউনিয়ন গঠনের প্রস্তাব দিয়েছেন।

সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙ্গে পড়ার পর বিশেষ করে আমেরিকায় ১১ই সেপ্টেম্বরের সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার পর পাশ্চাত্যে ইসলাম বিদ্বেষ মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। পাশ্চাত্যের অনেক বুদ্ধিজীবী ‘সভ্যতার মধ্যে সংঘাত’ নামে তত্ত্ব প্রচার করে মুসলিম বিশ্বকে পাশ্চাত্যের মোকাবেলায় দাঁড় করানোর চেষ্টা করছে। এ লক্ষ্যে বিভিন্ন মহল নানা কৌশলে পাশ্চাত্যের সঙ্গে মুসলিম বিশ্বের মধ্যে উত্তেজনা ও সংঘাত সৃষ্টির পায়তারা করছে। ইসরাইলের পৃষ্ঠপোষকতায় পাশ্চাত্যের এসব কুচক্রী মহল ইসলাম আতঙ্ক ছড়িয়ে দেয়ার মাধ্যমে সারা বিশ্বের খ্রিষ্টান ও মুসলমানদেরকে পরস্পরের মুখোমুখি দাঁড় করানোর চেষ্টা করছে।

সম্প্রতি আমেরিকায় বিশ্বনবী হযরত মোহাম্মদ (সা.)কে অবমাননা করে চলচ্চিত্র নির্মান এবং উগ্র পাদ্রীদের হাতে পবিত্র কুরআন শরীফ পোড়ানোর ঘটনা থেকে তাদের উদ্দেশ্যের বিষয়টি স্পষ্ট হয়ে যায়। এ ছাড়া, ইসরাইলের সমর্থনপুষ্ট পাশ্চাত্যের এসব কুচক্রী মহল বিভিন্ন উগ্র ও সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর সহায়তায় মুসলিম দেশগুলোতে অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। এর অন্যতম দৃষ্টান্ত হচ্ছে পাকিস্তান। ইহুদিবাদি ইসরাইলের কাছ থেকে অর্থ সহায়তা নিয়ে উগ্র ওয়াহাবি ও সালাফি গোষ্ঠী প্রতিদিনই পাকিস্তানে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে।

অন্যদিকে, ন্যাটো ও মার্কিন বাহিনী আফগানিস্তান দখল করে আছে এবং সেখানে প্রতিদিনই তারা নানা ধরনের অপরাধি কর্মকাণ্ডে লিপ্ত। পাশ্চাত্য সৌদিপন্থী উগ্র ওয়াহাবি ও সালাফি গোষ্ঠীর সহায়তায় সিরিয়ায়ও গোলযোগ বাধিয়ে রেখেছে এবং প্রতিদিনই সেখানে সহিংসতা ও রক্তপাতের ঘটনা ঘটছে। এ অবস্থায় আফগানিস্তান ও সিরিয়ার সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক সমাজ এগিয়ে আসবে বলে এ দেশ দু’টির জনগণ আশা করছে।

বিষ্ময়ের ব্যাপার হচ্ছে, আমেরিকার চাপে পড়ে জাতিসংঘও মুসলমানদের বিরুদ্ধে পাশ্চাত্যের অপরাধযজ্ঞের ব্যাপারে টু শব্দটিও করছে না। ঠিক এ অবস্থায় ইসলামাবাদে মুসলিম সংহতি বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হল। এ সম্মেলনে পাকিস্তানের জাতীয় সংহতি পরিষদ এনএসসি’র প্রধান কাজি হোসেন আহমাদ বলেছেন, ইসলামের সব মাজহাবেই মূল নীতি-আদর্শ একই এবং অভিন্ন বিষয়গুলোকে মুসলিম উম্মার মধ্যে ঐক্য প্রতিষ্ঠার কাজে ব্যবহার করা উচিত। তিনি মুসলমানদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টির জন্য শত্রুদের ষড়যন্ত্রের ব্যাপারে হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেন, মুসলমানদের সামনে বিরাজমান বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ ও সমস্যা মোকাবেলায় ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই। আর এ ঐক্যের একমাত্র উপায় হচ্ছে মুসলমানদের মধ্যকার ছোট-খাটো মতভেদকে দূরে সরিয়ে রাখা।

সম্মেলনে উপস্থিত পাকিস্তানের মুসলিম ঐক্য পরিষদের মহাসচিব আল্লামা মোহাম্মদ আমিন শাহিদিও মুসলমানদের মধ্যে অনৈক্য সৃষ্টি হয় এমন কাজ করা থেকে বিরত থেকে শত্রুর মোকাবেলায় নিজেদের মধ্যে ঐক্য প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানান।

পাকিস্তানের জামায়াত উদ্‌ দাওয়া পার্টির প্রধান হাফিজ মোহাম্মদ সাঈদও শিয়া-সুন্নী বিরোধে জড়িয়ে অযথা সময় নষ্ট না করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, এ ধরনের বিরোধের কোনো ভিত্তি নেই এবং আমেরিকার ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় ঐক্যবদ্ধ হওয়া সব মুসলমানের দায়িত্ব।

source : bangla.irib.ir/
  641
  0
  0
امتیاز شما به این مطلب ؟

latest article

    ইসরাইলি বাহিনীর হামলায় হামাসের ২ ...
    'গাজায় ইসরাইলি বিমান হামলার শরিক ...
    ইয়েমেনে শিশুদের ওপর হামলায় মার্কিন ...
    আগ্রাসীদের রাজধানী আর নিরাপদ থাকবে ...
    গ্রিসে ইসলামের প্রসার বাড়ছে
    ঘুড়ি ও বেলুনে অসহায় ইসরাইলের নয়া ...
    সৌদি জোটের বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ
    ইয়েমেনিদের হামলায় ৫৮ সৌদি সেনা নিহত
    শুক্রবার দেখা যাবে শাওয়াল মাসের নতুন ...
    ইসরাইল-বিরোধী সংগ্রাম জোরদারের শপথে ...

 
user comment